img
Home / বিবিধ ও বিশ্ব / কফি আমাদের রুচি পরিবর্তন করতে সাহায্য করে

কফি আমাদের রুচি পরিবর্তন করতে সাহায্য করে

কফি সবচেয়ে অতিভূত পানীয় মনে হয় প্রতিদিনই কিন্তু অন্য একটি গবেষণা করে জানা যায় এটি ক্যান্সারের সৃষ্টি বা নিরাময় করতেও সক্ষম।প্রচুর বিজ্ঞানী আছেন যারা আসলে এটির প্রভাব বুজতে পারে না, এইটা কিন্তু আশ্চর্যজনক। প্রকৃতপক্ষে, আমারা দিনে যে খাবারগুলো খেয়ে থাকি, কফি আমাদের স্বাদের পরিবর্তন আনতে সাহায্য করে , একটু নতুন গবেষণায় জানা যায়। আমরা এতদিন কফিকে শুধু  একটা ঔষুধ হিসেবে খেয়ে এসেছি যা আমাদের ক্লান্তি দূর করে, কিন্তু আমরা এর স্বাদ এবং প্রভাব সম্পর্কে খুব একটা অনুধাবন করিনি। কর্নেল এর একদল গবেষক আগে থেকে কফির ভিতর এডিনোসিন এর উপস্থিতি অনুমান করেন, যা একটি রাসায়নিক ক্যাফিন ব্লক আমাদের জেগে থাকতে সাহায্য করে , এছাড়া স্বাদের একটি সংশ্লিষ্টতা আছে বলে মনে হচ্ছে। তারা মানুষের মধ্যে ক্যাফিনের প্রভাব পরীক্ষা করেছে এবং দেখেছে যে এটি কিভাবে প্রভাবিত হয় তা কেবল কফিতে নয় বরং অন্যান্য খাবারগুলির মধ্যেও কিছুটা অনুভব করা যায়। কর্নেলের গবেষক রবিন ডান্ডোর মতে – মানুষ একটি মিষ্টি দাঁত নিয়ে জন্ম নিয়েছে যা অন্য কিছুর মত নয়। তিনি আরো বলেন হয়ত স্বাদ সে তুলনায় প্লাস্টিক। তাদের গবেষণার উপর একটি প্রশ্ন উঠে আসে, একটি প্লেসবোর উপর ক্যাফিনের প্রভাব কত বেশি হতে পারে।

এই গবেষক প্রায় ১০৭টি প্যানেলধারীদের পরীক্ষা করেছেন। প্যানেলে প্রায় অর্ধেকই মিষ্টিযুক্ত ডিক্যাফিনেট কফি পান করেন যা প্রথম দিনে (ক্যাফিনের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে) ফিরিয়ে দেয়। বাকি অর্ধেক ক্যাফিনের তিক্ত স্বাদ প্রতিস্থাপন করার জন্য কুইনিনের সাথে মিষ্টি মিষ্টি ডিক্যাফিনেট কফি পান করে, এবং তারপর মিষ্টি, লবণাক্ত, খাস্তা, তিক্ত ও উমিমি বিভিন্ন স্বাদের যৌগগুলো টেস্ট করেন। কোন গ্রুপই জানতো না তাদের পরস্পরের কাপে কি ছিল।

ক্যাফিনেটেডযুক্ত কফি কম মিষ্টি যেখানে কুইনিন অপেক্ষাতর বেশি মিষ্টি এবং সুক্রোজ এর স্বাদ কম মিষ্টি। এটি সম্ভবত ক্যাফিনের প্রভাবের কারণে – যা মস্তিষ্কের এডেনসাইন রিসেপটরগুলিকে ব্লক করে দেয়। গবেষকরা ধারণা করেন যে, মিষ্টি সংবেদনশীলদের সহজে এডিনোসিন রিসেপ্টরগুলিকে ব্লক করে দেয়। ডক্টর ডান্ডোর মতে – কফির পানের সঙ্গে সঙ্গে খাদ্যের স্বাদের স্পষ্ট পরিবর্তন লক্ষ করবেন যা খুবই মজার । তারমানে এই যে, আপনি যদি একটি ক্যাফিনসহ পান করেন স্বাদটা একই না। গবেষণায় আরেকটি অদ্ভুত জিনিস খুঁজে ছিল, গবেষকরা ইতিমধ্যে ক্যাফেইনযুক্ত বনাম ডিক্যাফেইনযুক্ত কফি পানকারীদের একটি বড় নমুনা বের করেন, এছাড়া তারা এটাও বের করেছেন তারা মদ্যপান করার পর কেমন অনুভব করেন। এইটা দ্বারা অংশগ্রহণকারীদের একটি সমান পরিবর্তন অনুভূত হয়েছে, নির্বিশেষে তারা এখন  সতর্ক থাকবে যে, ক্যাফিনেটেড বা ডিক্যাফিনেটেড কফি পান করবে কিনা। এইটা এক ধরণের প্লেসবো প্রভাব অথবা সাধারণ অবস্থাতে পারে,  যা আপনি জাগ্রত থাকতে ক্যাফিন ব্যাবহার করে থাকেন তাই আপনি অনুভব নাও করতে পারেন ক্যাফিন আছে নাকি নেই।

তবে গবেষণার সীমাবদ্ধতা আছে, আর ডক্টর ডান্ডোর গবেষণায় ছিল তিন চতুর্থাংশ মহিলা এবং বয়স ৪০ এর নিচে। কিন্তু একটি জিনিস কল্পনা করুন, কফি আপনার দিনের পরিবর্তনের পরিবর্তে ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে আপনার অন্যান্য পরিবর্তন করছে যা আপনি আশা করছেন না।

Resource: গবেষণাটি এখানে পাওয়া যাবে 

Comments Below

comments

  • Facebook
  • Twitter
  • Google+
  • Pinterest
  • stumbleupon